অযোগ্য স্কুল শিক্ষক : বাংলা বানান পারেন না! স্কুলের গেটে তালা দিলেন অভিভাবকরা। চড়ুইপুর প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক রাজীব কুমার

অযোগ্য স্কুল শিক্ষক - বাংলা বানান না পাড়ায় স্কুল শিক্ষকে বাইরে বসিয়ে তালা দিলেন অভিভাবকরা | বাংলা বানান পরে না স্কুলের শিক্ষক।

অযোগ্য স্কুল শিক্ষক : বাংলা বানান না পাড়ায় স্কুল শিক্ষকে বাইরে বসিয়ে তালা দিলেন অভিভাবকরা।



Bakura Schools News: 

বাঁকুড়ার ওন্দা থানার চড়ুইপুর প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক রাজীব কুমার দীক্ষিত । পেশায় তিতি স্কুলের শিক্ষক অথচ তিনি নাকি বাংলা বানান ঠিকঠাক করতে পারেন না, ইংরেজি বই পড়াতেই চান না এমনি অভিযোগ নিয়ে সোমবার ওই স্কুলের অভিভাবককেরা স্কুলের গেট এ তালা ঝুলিয়ে দিলেন।



অযোগ্য শিক্ষকে স্কুল থেকে সরানোর দাবি জানিয়ে, স্কুলের গেট এ তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ জানান গ্রামের বাসিরা। এবারে শিক্ষকের ঠিক থাক বানান না পাড়ার ঘটনাটি রীতিমতো ভাইরাল নেট দুনিয়ায়।


ওই এলাকার গ্রামবাসী প্রথমে এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রশাসকে জানিয়েছেন কিন্তু কোনো কাজ না হওয়ায় গ্রামবাসীরা সোমবার স্কুলের গেট এ তালা ঝুলিলে শিক্ষকদের বাইরে বসিয়ে রাখেন অভিভাবকরা।


গ্রামেরবাসীর সাথে পুরোপুরি সহমত ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক দিলীপ কুমার নন্দী (প্রধান শিক্ষক) 



স্বপন পাল (অভিভাবক) এর অভিযোগ : ওই শিক্ষকের হয়তো কাগজ পত্র ঠিক আছে কিন্তু তা দেখে কী হবে? "আমরা দেখবো যে উনি যোগ্য কী না ছাত্রছাত্রীদের পড়াতে পারছেন কী না, এটা শুধু দেখবো। আমাদের কাছে এটাই কিন্তু বিবেচ্ছ বিষয়। "


সুবল পাল (অভিভাবক) এর অভিযোগ : "আমাদের ছেলেদের যেভাবে পড়াচ্ছেন উনি তাতে করে তো, কয়েকটা ছেলেরা নিজেদের নাম-সই করতে পারছেন না…. আর ইংরেজ সাবজেক্ট কোনোদিন খুলেই না বলছেন…. বাংলাও পড়াতে পড়বেন না ইংরেজি পড়াতে পারবেন না কোনো সাবজেক্ট পড়াতে পারবেন না, তাহলে উনি করবেনটা কী?..... মুসুরডাল বানান লিখতে পারেন না… একজন সাইট থেকে বলে দেওয়ার পরে বানান লিখছে.."


দিলীপ কুমার নন্দী (প্রধান শিক্ষক) অভিযোগ : ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বলছেন রাজীব কুমার দীক্ষিতকে ইংরেজি ও যুক্তক্ষর পড়াতে পারেন না বলে শিখতে বলেছিলেন কিন্তু এতে উনি রেগে গিয়ে বলেন 'আমি কী ইংরেজির ছাত্র'।


প্রধানশিক্ষক শিকার করছেন যে রাজীব কুমার দীক্ষিত পড়াতে পারছেন না।


অযোগ্য স্কুল শিক্ষক : চড়ুইপুর প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

  1. প্রথমত, ছাত্রছাত্রীদের তিনি ভুল ভাল পরান।

  2. বানান জানেন না শিক্ষক রাজীব কুমার দীক্ষিত।

  3. ইংরেজি বই পড়াতে বলে ছাত্রছাত্রীদের কথা এড়িয়ে যান এবং ইংরেজি বই পড়ান না তিনি।

  4. বাংলা বানান করতে পারেন না।

  5. অভিভাবকদের যাবি মুসুরডাল বানান করতে পারে না এই স্কুল শিক্ষক।

  6. তাই অযোগ্য এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরব গোটা গ্রামবাসী।


অভিযুক্ত রাজীব কুমার দীক্ষিত এর মতামত :

যেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে এতো অভিযোগ তার কথায়, তাকে নাকি মিথ্যে ফাঁসানো হচ্ছে। তিনি ঠিকঠাক পড়ানো ছাত্রছাত্রীদের।


"যদি কিছু সাজিয়ে বলে দেয় তাহলে আমি কী করব.." (অভিযুক্ত শিক্ষক রাজীব কুমার দীক্ষিত)


Comments Below

If You Any Questions or Any Suggestions


কোন মন্তব্য নেই



গুগল নিউস এ Sarkarisuvidha.in অনুমতি প্রাপ্ত , ফলো করতে ভুলবেন না

West Bengal New 7 Districts: রাজ্যে ৭টি নতুন জেলার নাম ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর। দেখে নিন নতুন জেলাগুলির নাম।

West Bengal New 7 District Name: মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা সোমবার নবান্ন থেকে রাজ্যের নতুন ৭ জেলার নাম ঘোষণা করলেন। Mamata Banerjee Announc...